কুড়িগ্রামে বন্যা: ৩২৪ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ

কুড়িগ্রাম সংবাদদাতাকুড়িগ্রাম সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ৩:৩৮ অপরাহ্ণ, ২২/০৬/২০২২

সংগৃহীত

কুড়িগ্রামে ধরলা, তিস্তা, দুধকুমার ও ব্রহ্মপুত্রের পানি বৃদ্ধি হওয়ায় বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। প্রতিদিন নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। এর ফলে পানিবন্দি মানুষের সংখ্যাও বাড়ছে।
এছাড়া বন্যার পানি প্রবেশ করায় কুড়িগ্রামে ২৯৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ৩০টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ রাখা হয়েছে।

জানা গেছে, টানা এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ঘরবাড়িতে পানি থাকায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন চরাঞ্চল ও নিম্নাঞ্চলের বন্যাকবলিত মানুষ। এছাড়া দেখা দিয়েছে শুকনো খাবার ও বিশুদ্ধ পানির সংকট।

স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) জানায়, ধরলা নদীর পানি সামন্য কমে বিপৎসীমার ৪২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। ব্রহ্মপুত্র নদ নুনখাওয়া পয়েন্টে স্থিতিশীল থাকলেও চিলমারী পয়েন্টে ৩ সেন্টিমিটার বেড়ে বিপৎসীমার ৫৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। নদনদীর পানি বেড়ে জেলায় বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হতে পারে, বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে পাউবো।

জেলা প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের বরাত দিয়ে জেলা প্রশাসনের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা শাখা জানায়, বিদ্যালয় সংলগ্ন মাঠ ও আশেপাশের এলাকা প্লাবিত হওয়ায় জেলার নয় উপজেলার ২৯৪ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান স্থগিত রয়েছে। এছাড়া ২৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ৭টি মাদ্রাসা ও ১টি কলেজের পাঠদান কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। সবচেয়ে বেশি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্লাবিত হয়েছে নাগেশ্বরী উপজেলায়, ৭৯টি।

কুড়িগ্রাম জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম বলেন, বন্যায় শিক্ষার্থীদের ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনা করে ২৯৪ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম জানান, বন্যা মোকাবিলায় স্থানীয় প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে। দুর্গত এলাকায় ত্রাণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। যাদের ঘরবাড়িতে বন্যার পানি প্রবেশ করেছে তাদেরকে নিকটবর্তী আশ্রয়কেন্দ্র কিংবা বিদ্যালয় ভবনে আশ্রয় নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

Nagad

রেজাউল করিম আরও বলেন, নয়টি উপজেলার বন্যা কবলিত মানুষের জন্য ৩৩৮ টন চাল, নগদ ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা, এক হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার, ১৮ লাখ ৯৫ হাজার টাকার শিশু খাদ্য ও ১৭ লাখ ৭৫ হাজার টাকার গোখাদ্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

সারাদিন/২২ জুন/এমবি