আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী ঢাকা মোটর শো-পর্দা নামছে আজ

অটোমোবাইল প্রতিবেদক:অটোমোবাইল প্রতিবেদক:
প্রকাশিত: ৪:০৫ অপরাহ্ণ, ২৫/০৬/২০২২

ছবি: শাহজালাল রোহান

সেমস-গ্লোবাল ইউএসএ এর আয়োজনে ‘১৫তম ঢাকা মোটর শো-২০২২” চলছে। আজ পর্দা নামছে এই শো’র। মোটর প্রেমীদের মধ্যে অত্যন্ত জনপ্রিয় এই প্রদর্শনী দুই বছর পর আবার ফিরে এসেছে।

ব্র্যান্ড নিউ গাড়ি, বাইক সহ অটোমোটিভ জগতের বিপুল সমারোহ নিয়ে বসেছে এবারের মেলা। শুক্রবার (২৪জুন) উপচে ভড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

এই প্রদর্শনী তিন দিনব্যাপী চলছে। ঢাকায় ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা (আইসিসিবি) বসেছে -এবারের মেলা। প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এর চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) এর ভাইস-চেয়ারম্যান জনাব এ এইচ এম আহসান, ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ান এক্সপোর্ট অর্গানাইজেশনের (এফআইইও) সহ-সভাপতি খালিদ খান, সুজুকি মোটরবাইকস লিমিটেড এর বিভাগীয় প্রধান শোয়েব আহমেদ, হুমায়ুন রাশিদ, ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সেমস্ গ্লোবাল এর প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড গ্রুপ ম্যানেজিং ডিরেক্টর মেহেরুন এন. ইসলাম।

সেমস্ গ্লোবাল এর প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড গ্রুপ ম্যানেজিং ডিরেক্টর মেহেরুন এন. ইসলাম। তিনি এই প্রদর্শনী আয়োজনের নানান বিষয় তুলে ধরেন। তিনি বলেন, “কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে ঢাকা মোটর শো আয়োজন করা সম্ভব হয়নি, এই মহামারীর কারণে সারা বিশ্বের ইভেন্ট ও এক্সিবিশন সেক্টর ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এবার মহামারীর প্রাদুর্ভাব কমে যাওয়ায় আমাদের প্রতিষ্ঠান ‘সেমস-গ্লোবাল ইউএসএ” বড় পরিসরে ঢাকা মোটর শো আয়োজন করেছে।

প্রধান অতিথি বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এর চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, “বাংলাদেশের মোটর ও অটোমোটিভ শিল্পের বিকাশে এই প্রদর্শনী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এ ধরণের ইতিবাচক পদক্ষেপের ফলে বিশ্ব বাজারে বাংলাদেশ ভাবমূর্তি যেমন উজজোল হবে পাশাপাশি বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থার সংকট দূর হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।“

Nagad

যৌথভাবে একই সময়ে অনুষ্ঠিতব্য “ঢাকা মোটর শো”, “ঢাকা বাইক শো”, “ঢাকা অটোপার্টস শো” এবং “ঢাকা কমার্শিয়াল অটোমোটিভ শো” বাংলাদেশের অটোমোটিভ শিল্পের একমাত্র আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী, যাতে জার্মানি, ইতালি, ফ্রান্স, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, চীন, ভারত, মালয়েশিয়া সহ আরো ১৫টি দেশের বিভিন্ন ব্র্যান্ড, ২৮৭টি প্রদর্শক, ৫৩০টি বুথের মাধ্যমে অংশ নিচ্ছে। প্রদর্শনীতে থাকছে, ইয়োরোপীয়ান ব্রান্ডের মাসারাতি, পোরশে, ডিফেন্ডার, হুন্দাই, জীপ বাংলাদেশের র‍্যাংগলার, পিএইচ পি অটোমোবাইল, মিতসুবিশি, হোন্ডা, এইচ অটোস, টয়োটা, ইত্যাদি ব্রান্ডের গাড়ি ও বাইক। দর্শনার্থীদের জন্য মোটরবাইক কোম্পানি গুলো অনেক নতুন নতুন মডেল নিয়ে উপস্থিত থাকবেন।

“৬ষ্ঠ ঢাকা মোটর শো” এর প্লাটিনাম স্পন্সর সুজুকি। বিশ্বখ্যাত সুজুকি মোটরসাইকেল আমাদের দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় মোটরসাইকেল কোম্পানি। সুজুকি ২০১২ সালে বাংলাদেশে আসার পর থেকে সফলতার সাথে এগিয়ে চলেছে। বাংলাদেশের মোটর সাইকেল শিল্পে যুগান্তকারী ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। প্রিমিয়াম মানের ব্র্যান্ড হিসেবে সুজুকি বাংলাদেশের মোটর প্রেমীদের এখন অন্যতম পছন্দ।

এনার্জি প্যাক “৪র্থ ঢাকা কমার্শিয়াল অটোমোটিভ শো এর” প্লাটিনাম স্পন্সর। এনার্জিপ্যাক বাংলাদেশে এককভাবে 33kV, 132kV, 230kV, এবং 400kV রেঞ্জে ৫০০ টিরও বেশি প্রকল্প সফলভাবে সরবরাহ করা সহ বিদ্যুৎ পণ্যের নকশা ও উত্পাদন এবং শীর্ষস্থানীয় টার্নকি সাবস্টেশন প্রদানকারী হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী ২০ টিরও বেশি দেশে এনার্জি প্যাক গ্রাহকদের কাছে পণ্য রপ্তানি করছে।

নিটল মোটরস লিমিটেড “৪র্থ ঢাকা কমার্শিয়াল অটোমোটিভ শো” এর গোল্ড স্পন্সর। ১৯৮৬ সাল থেকে টাটা মোটরসের অংশ হিসেবে নিটল নিলয় গ্রুপের প্রধান সহ প্রতিষ্ঠান নিটল মোটরস লিমিটেড যাত্রা শুরু করে। এটি বাস, ট্রাক, যাত্রী সংস্করণ পিকআপ, ট্রাক বিভিন্ন নির্মাণ সরঞ্জাম ইত্যাদি সেবা নিয়ে বাংলাদেশে বাণিজ্যিকভাবে ব্যাপক সফলতা অর্জন করেছে।

উল্লখ্যে যে, সেমস্-গ্লোবোল ইউএসএ ১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিগত ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় বহু জাতিক প্রদর্শনীর আয়োজক প্রতিষ্ঠান হিসেবে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। বর্তমানে সংস্থাটি বিশ্বের ৭টি দেশে সেমস্ ইউএসএ, সেমস্ চায়না, সেমস্ ইন্ডিয়া, সেমস্ বাংলাদেশ, সেমস্ শ্রীলংকা, সেমস্ মরক্কো এবং সেমস্ ব্রাজিল নামে নিজস্ব অফিস পরিচালনা করছে এবং ৪টি মহাদেশে তার কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এছাড়া, আরো ১০টি দেশে অ্যাসোসিয়েট শাখার মাধ্যমে বছরে ৪০টিরও বেশি আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী আয়োজন করছে।

বাংলাদেশে দ্রুত প্রসারমান অটোমোটিভ ও অটো-কম্পোনেন্টখাতকে বেগবান করার লক্ষ্যে আয়োজিত এই প্রদর্শনীতে ক্রেতা, দর্শক ও উদ্যোক্তাগণ ব্র্যান্ড নিউ গাড়ি, যন্ত্রাংশ, আনুষঙ্গিক উপকরণ ও নতুন নতুন প্রযুক্তির সাথে পরিচিত হতে পারবে। প্রদর্শনীটি মোটর ইন্ডাস্ট্রির জন্য একটি ওয়ান স্টপ প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করবে।

প্রদর্শনীগুলো প্রতিদিন সকাল ১০.৩০ থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

সারাদিন.২৫জুন. আরএ