আজকের দিনের আন্তর্জাতিক পর্যায়ের শীর্ষ ১০ খবর

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:২৪ অপরাহ্ণ, ২৯/০৭/২০২২

ভারতে মিগ-২১ যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত হয়ে দুই পাইলট নিহত

ভারতের রাজস্থানে মিগ-২১ যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত হয়ে দুই পাইলট নিহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে প্রশিক্ষণকালীন উড্ডয়নের সময় রাজস্থানের বারমারে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর এনডিটিভির। বিমানবাহিনী এক বিবৃতিতে জানায়, দুই আসনের মিগ-২১ প্রশিক্ষণ বিমানটি সন্ধ্যায় রাজস্থানের উতরলাই বিমানঘাঁটি থেকে প্রশিক্ষণের অংশ হিসেবে উড্ডয়ন করে। রাত ৯টা ১০ মিনিটের দিকে বারমারের কাছে বিমানটি দুর্ঘটনায় পড়ে।দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত দুই পাইলটই মারা যান। তাঁদের মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছে ভারতীয় বিমানবাহিনী। দুর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখতে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলেও বিবৃতিতে জানানো হয়। সূত্র: প্রথম আলো

দ. এশিয়ায় বিপদ বাড়বে

করোনা মহামারির কারণে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো দুই বছর ধরেই সংকটময় পরিস্থিতির ভেতর দিয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু চলতি বছর ইউক্রেনে রাশিয়ার বিশেষ অভিযান শুরুর পর বিশ্বে যে জ্বালানিসংকট দেখা দিয়েছে, তা দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর জন্য মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা হিসেবে দেখা দিয়েছে। অর্থনৈতিক সংকটে দেশগুলোর বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ কমে যাওয়ার কারণে জ্বালানি বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলোও এখন দক্ষিণ এশিয়ার ওই দেশগুলোর কাছে জ্বালানি বিক্রি করতে চাইছে না। আর এতে সংকট আরো ঘনীভূত হচ্ছে বলে ব্লুমবার্গের গতকাল বৃহস্পতিবারের এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। পাকিস্তানের রাষ্ট্রায়ত্ত কম্পানি পাকিস্তান স্টেট অয়েল করপোরেশনের কাছে কয়েকটি কম্পানি তেল বিক্রি করতে চাইছে। কিন্তু জ্বালানি আমদানির জন্য যে বৈদেশিক অর্থের প্রয়োজন, তা পাকিস্তানকে ঋণ হিসেবে দিতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছে বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান। শ্রীলঙ্কাকেও একই সমস্যার মধ্য দিয়ে যেতে হচ্ছে। দেশটি এখন প্রতিবেশী ভারতের কাছ থেকে নিয়মিত তেল নিয়ে সরবরাহব্যবস্থা চালু রাখতে চাইছে। জ্বালানিসংকট মোকাবেলা করতে দক্ষিণ এশিয়ার অন্য দেশ বাংলাদেশও এরই মধ্যে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। সূত্র: কালের কণ্ঠ

শৃঙ্খলা পুনরুদ্ধারে জরুরি অবস্থা বাড়ল শ্রীলংকায়
সন্দেহভাজনদের গ্রেফতার এবং আটক রাখার ক্ষমতা পেল সেনাবাহিনী

নজিরবিহীন অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সংকটে টালমাটাল দ্বীপ রাষ্ট্র শ্রীলংকা। এরমধ্যে চলমান জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়িয়েছে দেশটির সংসদ। দেশজুড়ে শৃঙ্খলা পুনরুদ্ধারে আরোপিত কঠোর জরুরি আইন আগামী এক মাসের জন্য বাড়ানো হয়েছে। দেশটির পার্লামেন্টে ভোটাভুটির পর আসে ঘোষণাটি। এ বিষয়ে বুধবার দেশটির পার্লামেন্টের ২২৫ জন সদস্যের মধ্যে জরুরি অবস্থা বাড়ানোর পক্ষে ভোট দেন ১২০ এমপি। বিপক্ষে অবস্থান নেন ৬৩ জন সংসদ-সদস্য। জরুরি এ অধ্যাদেশে সন্দেহভাজনদের যে কোনো সময় গ্রেফতার এবং দীর্ঘ সময় আটক রাখার ক্ষমতা দেয় সেনাবাহিনীকে। দীর্ঘদিন ধরে শ্রীলংকার অর্থনীতিতে চরম মন্দা পরিস্থিতি বিরাজ করছে। বিদেশি মুদ্রার রিজার্ভ তলানিতে, মুদ্রাস্ফীতিও আকাশছোঁয়া। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রী কিনতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন মানুষ। এ অবস্থায় ক্ষোভ দানা বাঁধতে শুরু করে দেশটির সাধারণ নাগরিকদের মধ্যে। একপর্যায়ে রাজাপাকসে সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু হয়।বিক্ষোভ দমাতে এপ্রিলের শুরুতে রাষ্ট্রীয় জরুরি অবস্থা জারি করেন প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে। কিন্তু প্রেসিডেন্টের এমন পদক্ষেপ বিক্ষোভ দমাতে ব্যর্থ হয়। উলটো মাত্রা আরও তীব্র হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসায় মে মাসে পদত্যাগ করেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে। ১২ মে নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেন রনিল বিক্রমাসিংহে। তবুও থামেনি বিক্ষোভ। জনতার আন্দোলনের মুখে টিকতে না পেরে দেশ ছেড়ে পালিয়ে যেতে বাধ্য হন প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে। সূত্র: যুগান্তর

Nagad

যুদ্ধ প্রস্তুতির ঘোষণা উত্তর কোরীয় নেতার
একটি দেশের ধ্যান-জ্ঞান-সাধনা শুধুই যুদ্ধ। দেশের মানুষের পেটে খাবার থাকুক বা না থাকুক। অস্ত্র তৈরি করতেই হবে। সেই দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের পর থেকেই এই অবস্থা। আর দেশটি হলো উত্তর কোরিয়া। দেশটি গতকাল ১৯৫০-৫৩ সালের কোরিয়ান যুদ্ধ মুলতবির বর্ষ পালন করেছে। সেখানে ভাষণ দিয়েছেন দেশটির নেতা কিম জং-উন। ভাষণে রাখঢাক না রেখেই জানিয়েছেন তার দেশ এখন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্মুখ যুদ্ধে যেতে প্রস্তুত। কিম জং-উন বলেছেন, দেশের পারমাণবিক অস্ত্র যুদ্ধাভিযানে মোতায়েনের জন্য তৈরি আছে এবং যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যে কোনো যুদ্ধের জন্য তার দেশ এখন পুরোপুরি প্রস্তুত।গতকাল রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কেসিএস এ খবর দিয়েছে। কোরিয়ান যুদ্ধবিরতির ৬৯তম বার্ষিকীতে তিনি প্রবীণ যোদ্ধাদের উদ্দেশে বক্তব্য দেওয়ার সময় এই হুমকি দিয়েছেন। ওয়াশিংটন ও সিউল দাবি করেছে, ২০১৭ সালের পর প্রথমবার পারমাণবিক পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছে উত্তর কোরিয়া। এরপর এমন মন্তব্য করলেন কিম জং উন। এ খবর দিয়েছে ডয়েচে ভেলে। সূত্র: বিডি প্রতিদিন।

মিয়ানমার জান্তাকে জি-৭
মৃত্যুদণ্ড থেকে বিরত থাকুন

মিয়ানমারে চারজন গণতন্ত্রপন্থি কর্মীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার নিন্দা জানিয়েছে বিশ্বের ধনী দেশগুলোর জোট জি-৭। একই সঙ্গে ক্ষমতাসীন সামরিক বাহিনীকে ‘নির্বিচারে আরও মৃত্যুদণ্ড দেওয়া থেকে বিরত থাকার’ এবং সব রাজনৈতিক বন্দিকে মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে এই জোট। গতকাল বৃহস্পতিবার এই আহ্বান জানায় তারা। জি-৭ পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের এক যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, ‘এই ধরনের রাজনৈতিক মৃত্যুদণ্ড মিয়ানমারের ৩০ বছরেরও বেশি সময়ের ইতিহাসে এই প্রথম। সামরিক জান্তার এই পদক্ষেপ প্রমাণ করে, মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থি জনগণের আকাঙ্ক্ষার প্রতি সেনাবাহিনীর কোনো সম্মান নেই, বরং দেশটিতে ন্যায়বিচারের অনুপস্থিতি রয়েছে। আমরা মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং দেশের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সামাজিক, মানবিক ও মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি।’ রয়টার্স ও এএফপি। সূত্র: সমকাল

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ: দক্ষিণে খেরসন পুনর্দখলের জন্য মরিয়া লড়াই চালাচ্ছে ইউক্রেন বাহিনী

ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা কর্মকর্তারা বলছেন, রুশ-অধিকৃত খেরসন পুনর্দখলের জন্য ইউক্রেনের প্রয়াসে গতিসঞ্চার হয়েছে। ইউক্রেনীয় বাহিনী আমেরিকার সরবরাহ করা দূরপাল্লার হাইমার্স রকেট ছোঁড়ার পর খেরসন শহরে ঢোকার জন্য গুরুত্বপূর্ণ আন্তনভস্কি নামের একটি সেতু ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়েছে, এবং এর ফলে শহরটি অন্যান্য রুশ অধিকৃত এলাকা থেকে প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। সামরিক বিশ্লেষকরা বলছেন, এই সেতুটি বন্ধ হয়ে গেলে খেরসন দখল করে থাকা রুশ সৈন্যরা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে, এবং রাশিয়ার জন্য এটি হবে এক বিপর্যয়। ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা ও গোয়েন্দা কর্মকর্তারা বলছেন, ইউক্রেনীয় বাহিনীর পাল্টা আক্রমণে দক্ষিণাঞ্চলীয় খেরসন শহর রুশ দখলে থাকা এলাকার অন্যান্য শহর থেকে প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় দনিপ্রো নদীর কাছে মোতায়েন থাকা হাজার হাজার রুশ সৈন্য অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় পড়েছে। সূত্র: বিবিসি বাংলা।

অধিগ্রহণ চুক্তি নিয়ে বিরোধ
পাঁচদিনে মামলা শেষ করতে চায় টুইটার

৪ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের অধিগ্রহণ চুক্তি থেকে সরে আসায় ইলোন মাস্কের বিরুদ্ধে মামলা করেছিল টুইটার। সে মামলা নিষ্পত্তির সময় পেছানোর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আগামী ১৭ অক্টোবর কার্যক্রম শুরু হবে। এবার পাঁচদিনের মধ্যে মামলা নিষ্পত্তির প্রতিশ্রুতি চেয়েছে মাইক্রোব্লগিং প্লাটফর্মটি। খবর রয়টার্স। ভুয়া অ্যাকাউন্টের সংখ্যা যাচাইয়ে সময়ের প্রয়োজন উল্লেখ করে মামলার কার্যক্রম শুরুর সময় পেছানো আবেদন করেছিলেন ইলোন। সে সময় তিনি ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে মামলা শুরুর আবেদন করেছিলেন। তবে একজন বিচারক তিন মাসের মধ্যে মামলার কার্যক্রম শুরুর বিষয়ে রুল জারি করলে ১৭ অক্টোবর তারিখ নির্ধারণ করা হয়।ভুয়া অ্যাকাউন্টের বিষয়টিকে একটি বিভ্রান্তি বলে অভিহিত করেছে টুইটার। পাশাপাশি মাস্ককে দ্রুত অধিগ্রহণ কার্যক্রম শুরুর জন্য চাপ প্রয়োগ করে। কেননা দোদুল্যমান প্রক্রিয়া প্লাটফর্মটির ব্যবসায়িক কার্যক্রমে প্রভাব ফেলছে। আদালতের কাছে জমা দেয়া আবেদনে প্লাটফর্মটি জানায়, পাঁচদিনের মধ্যে মামলা মীমাংসার বিষয়ে ইলোন মাস্কের কাছ থেকে কোনো প্রতিশ্রুতি পাওয়া যায়নি। সূত্র: বণিক বার্তা

অ্যাঙ্গোলায় ৩শ’ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বড় গোলাপি হীরার সন্ধান
অ্যাঙ্গোলার লুলো অ্যালুভিয়াল খনিতে পাওয়া ১৭০ ক্যারেট এবং ৩৪ গ্রাম ওজনের দুষ্প্রাপ্য এই হীরার নাম খনির নামানুসারে রাখা হয়েছে ‘লুলো রোজ’। বিরল গোলাপি হীরার সন্ধান মিলেছে মধ্য আফ্রিকার দেশ অ্যাঙ্গোলায়। এটি বিশ্বে ৩০০ বছরের মধ্যে খুঁজে পাওয়া সবচেয়ে বড় হীরক খন্ড বলে ধারণা করা হচ্ছে।১৭০ ক্যারেট এবং ৩৪ গ্রাম ওজনের দুষ্প্রাপ্য এই হীরার নাম দেওয়া হয়েছে ‘লুলো রোজ’।অ্যাঙ্গোলার লুলো অ্যালুভিয়াল খনিতে হীরাটি পাওয়া যাওয়ায় খনির নামানুসারেই এর নামকরণ করা হয়েছে।খনির মালিক অস্ট্রেলিয়া ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান লুকাপা ডায়মন্ড কোম্পানি বুধবার তাদের ওয়েবসাইটে এ ঘোষণা দিয়েছে।লুকাপা ডায়মন্ড এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলেছেন, “তিন শতকেও এত বড় গোলাপি হীরা পাওয়া যায়নি খনিতে। বড় বড় হীরক খন্ড উত্তোলনের অনেক রেকর্ডই আমাদের আছে। তবে এই হীরা একেবারে আলাদা।” সূত্র: বিডি নিউজ

এলিজি প্রাসাদে সালমান-ম্যাক্রোঁর দীর্ঘ করমর্দন

ফ্রান্স সফর করছেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। তাকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। ফ্রান্সে পা রাখার পর সালমানকে ম্যাক্রোঁর সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ করমর্দন করতে দেখা গেছে। বিশ্লেষকরা বলছেন, পশ্চিমা বিশ্বে বন্ধুত্ব বাড়াচ্ছেন সৌদি যুবরাজ। ম্যাক্রোঁর সঙ্গে তার আচরণ তা-ই ইঙ্গিত দিচ্ছে। সংবাদমাধ্যম ফ্রান্স ২৪ জানায়, সালমান ফ্রান্সে আসার পর তাকে প্রেসিডেন্টের সরকারি বাসভবন এলিজি প্যালেসে স্বাগত জানান ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। সালমান প্রাসাদে এলে দুজন দীর্ঘ সময় ধরে করর্মদন করেন। সৌদি আরবের লেখক সাংবাদিক জামাল খাশোগির হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সমালোচিত সালমান। ফ্রান্সের কয়েকটি মানবাধিকার গোষ্ঠী বরাবর তার সমালোচনা করে আসছেন। এর মধ্যেই ফ্রান্স সফর করছেন সৌদির ডি ফ্যাক্টো শাসক। তাই সমালোচনার পারদ আরও বেশি চড়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, গ্রিস সফর শেষে বৃহস্পতিবার ফ্রান্সে পৌঁছান সালামন। তিনি এলিজি প্যালেসে ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর দেওয়া নৈশভোজে অংশ নেবেন। সৌদি যুবরাজের সঙ্গে আলোচনায় অংশ নেবেন ম্যাক্রোঁ। এ সময় তিনি মানবাধিকারের বিষয়টি তুলে ধরবেন। তেল উৎপাদন ও ইরানের পরমাণু চুক্তি নিয়েও সালমানের সঙ্গে আলোচনা করবেন ম্যাক্রোঁ। দুই নেতার বৈঠকের পর আলোচনার বিষয় নিয়ে এলিজি প্যালেস থেকে বিবৃতি প্রকাশের সম্ভাবনা রয়েছে। সূত্র: বাংলানিউজ

আমার বাড়িতে এত টাকা রাখা হয়েছিল জানতাম না: অর্পিতা

প্রায় সাড়ে ১৩ ঘণ্টা তল্লাশি চালানোর পর অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ফ্ল্যাট থেকে নগদ ৩০ কোটি টাকাসহ ৫ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার করেছে অ্যানফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) কর্মকর্তারা। বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) ভোর ৫টার দিকে টাকা গোনা শেষ হয়। এরপর ইডির অন্যান্য প্রক্রিয়া শেষে সকাল ৬টার দিকে নগদ অর্থসহ অন্যান্য জিনিস জব্দ করা হয়। পরে অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার জিনিসের একটি তালিকাও আবাসন কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।তবে ইডি সূত্রে জানা গেছে, ইডির কার্যালয়ে বসে টিভিতে টাকার ছবি দেখে উত্তেজিত হয়ে অর্পিতা মুখোপাধ্যায় প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের তাকিয়ে বলে ওঠেন, স্যার, এত টাকা আমার বাড়িতে রাখা হয়েছিল? এরপরে ইডির কর্মকর্তাদের দিকে তাকিয়ে বলেন, ‘বিশ্বাস করুন। এত টাকার কথা আমি জানতাম না।’ ইডির দাবি, প্রাথমিক জিঙ্গেসাবাদে জানা গেছে, টালিগঞ্জ ও বেলঘরিয়ার ফ্ল্যাটে টাকা নিয়ে যেতেন পার্থের প্রতিনিধি। সেই টাকা রেখে তারা চলে আসতেন। সূত্র: জাগো নিউজ