পর্যটন শিল্পের বিকাশে ঢাকা-সিঙ্গাপুর পারস্পরিক অংশীদারত্ব বৃদ্ধির আশাবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক:নিজস্ব প্রতিবেদক:
প্রকাশিত: ৪:৫০ অপরাহ্ণ, ০২/০৮/২০২২

পর্যটন শিল্পের বিকাশ ও সাংস্কৃতিক বিনিময়ের মাধ্যমে ঢাকা ও সিঙ্গাপুরের মধ্যকার পারস্পরিক দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও জোরদার করা, বর্জ্য হতে বিদ্যুত ও সার উৎপাদনে জাপানের ফুকুওকা ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধিসহ নানান বিষয়ে অংশীদারিত্ব বেগবান করার ব্যাপারে আশাবাদ জানিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

আজ মঙ্গলবার (২ অগাস্ট) সিঙ্গাপুরের মেরিনা স্যান্ডস্ বে হোটেলে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপসের সাথে সিঙ্গাপুরের জাতীয় উন্নয়ন মন্ত্রী ও সামাজিক সেবা সমন্বয়করণ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী (Minister for National Development and Minister in charge of Social Services Integration, singapore) ডেসমণ্ড লি (Desmond Lee) এবং জাপানের ফুকুওকা শহরের মেয়র সোইচিরো তাকাসিমার (Mayor of Fukuoka Soichiro Takashima) মধ্যকার আলাদা আলাদা দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে এই আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।

আজ সকালে সিঙ্গাপুরের জাতীয় উন্নয়ন মন্ত্রী ডেসমণ্ড লি এর সাথে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপসের প্রথম দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস নগর জীবনের সকল অনুষঙ্গকে সমন্বয় করে এবং বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন বিবেচনায় নিয়ে একটি টেকসই ও জলবায়ু সহনশীল নগর ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে দীর্ঘমেয়াদী মহাপরিকল্পনা প্রণয়নে গৃহিত উদ্যোগ সম্পর্কে অবগত করেন।

প্রতি উত্তরে জলবায়ু পরিবর্তনজনিত অভিঘাত মোকাবিলা ও শহর ব্যবস্থাপনায় টেকসই ও দীর্ঘমেয়াদী মহাপরিকল্পনা প্রণয়নের উদ্যোগকে অত্যন্ত ‘প্রশংসনীয়’ উল্লেখ করে সিঙ্গাপুরের উন্নয়ন মন্ত্রী বলেন, “এ ধরনের পরিকল্পনা ও তার যথার্থ বাস্তবায়ন নগর ব্যবস্থাপনার জন্য অত্যন্ত জরুরি ও প্রশংসনীয়। এর মাধ্যমে ঢাকা জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাব কাটিয়ে ওঠার পাশাপাশি জলবায়ু অভিঘাত সহনশীল ও আধুনিক নগরী হিসেবেও গড়ে ওঠবে।”

বৈঠকে পর্যটন শিল্পের বিকাশ ও সাংস্কৃতিক বিনিময়ের মাধ্যমে ঢাকা ও সিঙ্গাপুরের মধ্যকার পারস্পরিক দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও জোরদার করার বিষয়ে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস ও সিঙ্গাপুরের জাতীয় উন্নয়ন মন্ত্রী ডেসমণ্ড লি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এছাড়াও ঢাকা-সিঙ্গাপুর বাণিজ্য বৃদ্ধি সংক্রান্ত নানাবিধ বিষয় নিয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়।

Nagad

ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস এ সময় ঢাকাসহ সারাদেশের অবকাঠামো উন্নয়ন ও অর্থনীতির বিকাশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাওয়া বাাংলাদেশের সামগ্রিক চিত্র তুুলে ধরেন। জবাবে মন্ত্রী বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির ও সামষ্টিক উন্নয়নের প্রশংসা করেন।

পরে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস জাপানের ফুকুওকা শহরের মেয়র সোইচিরো তাকাসিমার সাথে আলাদা দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হন। এ সময় দুই মেয়র নগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলাপ করেন। ফুকুওকার মেয়র বর্জ্য হতে বিদ্যুত ও সার উৎপাদনের পাশাপাশি অন্যান্য উপজাতসমূহের ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমও তুলে ধরেন এবং এ বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সাথে পারস্পরিক সহযোগিতার প্রত্যশা ব্যক্ত করেন। জবাবে ঢাদসিক মেয়র ফুকুওকার মেয়রকে ধন্যবাদ জানিয়ে দুই শহর একযোগে পারস্পরিক অংশীদারত্ব জোরদার করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং ফুকুওকার মেয়রকে ঢাকা পরিদর্শনের আমন্ত্রণ জানান। ফুকুওকার মেয়র ঢাদসিক মেয়রের আমন্ত্রণ সাদরে গ্রহণ করেন এবং ঢাদসিক মেয়রকেও ফুকুওকা পরিদর্শনের আমন্ত্রণ জানান। ঢাদসিক মেয়র সুবিধাজনক সময়ে ফুকুওকা সফরের প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

এরপর ঢাদসিক মেয়র সিঙ্গাপুরের আরবান রিডেভেলপমেন্ট অথরিটির (Urban Development Authority) সিইও প্রকৌশলী হুই লিম (Eng Hwee Lim) এর সাথেও আলাদা আরেক দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হন।

এ সময় অন্যানের মধ্যে করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদ, সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. তৌহিদুল ইসলাম ও ঢাদসিক মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ মারুফুর রশিদ খান দ্বিপাক্ষিক বৈঠকসমূহে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ যে, গত ৩১ জুলাই সিঙ্গাপুরের মেরিনা স্যান্ডস্ বে হোটেলে ৪ দিনব্যাপী ওয়ার্ল্ড সিটিজ সামিট-২০২২ শুরু হয়। আগামী ৩ অগাস্ট ওয়ার্ল্ড সিটিজ সামিট-২০২২ এর সমাপ্তি ঘটবে। সামিটে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাষ্ট্র্য, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, দক্ষিণ আফ্রিকাসহ ৬০ দেশের মেয়রগণ অংশ নিচ্ছেন।