সব রাজনীতি ভুলে সর্বহারা ইউক্রেনীয় শরণার্থীদের পাশে দাঁড়ান: প্রিয়াঙ্কা

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ২:০৯ অপরাহ্ণ, ০৩/০৮/২০২২

সংগৃহীত

২০২২ সালের শুরু থেকে এখনও রাশিয়া-ইউক্রেনের পরিস্থিতি উত্তপ্ত। এই দুইদেশের যুদ্ধের ফলে সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ইউক্রেন। আর এই যুদ্ধের বিরোধীতা করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সরব ছিলেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

কিন্তু এবার যুদ্ধবিধস্ত ইউক্রেনীয়ন উদ্বাস্তুদের সাথে দেখা করতে গেছেন সাবেক মিস ওয়ার্ল্ড প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ইউনিসেফের সদস্যদের সাথে হাত হাত রেখে কাজ করলেন তিনি।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ইউনিসেফের গুড উইল অ্যাম্বসাডর। যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেন থেকে পোল্যান্ডে গিয়ে খানিকটা নিরাপদে এই মানুষগুলো। তবে প্রিয়জন হারানো দুঃখ তাদের চোখে মুখে। আর ওই পোল্যান্ডে গিয়ে তাদের সমস্যার কথা শুনলেন অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা।

শুধু তাই নয়, সেখানকার নারীদের প্রিয়জন হারানো এবং বাস্তুহারাদের কথা শুনে কেঁদেও ফেলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। তবে এত কিছুর মাঝেও প্রিয় অভিনেত্রীকে দেখে খুশি হন সেখানকান সরণার্থীরা। শুধু তাই নয়, সেখানে গিয়ে শিশুদের হাতে তুলে দেওয়া ঘরে তৈরী পুতুল গুলোর নামকরণ করা হয় প্রিয়াঙ্কার নামেই। যা কিনা ওখানে থাকা শিশুরাই সিদ্ধান্ত নেন।

পোল্যান্ড সফরের ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

সেখানে এক মহিলার সাথে কথা বলতে দেখা যায় প্রিয়াঙ্কাকে, যার স্বামী-পরিবার পোল্যান্ড অবধি এসে পৌঁছুতে পারেননি। তার আগেই যুদ্ধের গ্রাসে ছিন্নভিন্ন হয়ে গিয়েছেন।

Nagad

নিজের ইনস্টাগ্রামে অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা লিখেছেন, “উদ্বাস্তুরা অসহায়। তাদের ভবিষ্যৎ ও অনিশ্চিত। বিশ্ব নেতাদের কাছে আবদেন, সব ভেদাভেদ, সব রাজনীতি ভুলে এই সর্বহারা মানুষদের পাশে দাঁড়ান।”

প্রিয়াঙ্কা আরও লিখেছেন, “আমাদের সবার উদ্বাস্তুদের পাশে দাঁড়ানো উচিত। যারা উদ্বাস্তুদের হয়ে কাজ করছেন, তাদের সাথে হাত মিলিয়ে কাজ করা উচিত। আমাদের চুপ করে বসে থাকলে চলবে না।”

সারাদিন/০৩ আগস্ট/এমবি