স্টার্টআপে ৫ বছরে বিদেশি বিনিয়োগ এসেছে ৭৫০ মিলিয়ন ডলার: পলক

পাঁচ বছরে দেশের স্টার্টআপ কোম্পানিতে ৭৫০ মিলিয়ন ডলার বিদেশি বিনিয়োগ এসেছে-বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। তিনি বলেন, এই বিদেশি বিনিয়োগের ডলারের মূল্য ১০০ টাকা করে টাকার অংকে বিনিয়োগের পরিমাণ দাঁড়ায় ৭৫০০ কোটি টাকা।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) রাজধানীর নিকুঞ্জের ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ভবনে ‘বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে সম্ভাবনা ও সুযোগ’ শীর্ষক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, সাড়ে ৭ হাজার স্টার্টআপ কোম্পানির মধ্যে পাঁচ বছরে ২৫০০ প্রতিষ্ঠান সফল হয়েছে। সরকার ৩০০ কোম্পানিতে ১০ লাখ করে বিনিয়োগ করেছিল। এই কোম্পানিগুলোর মধ্যে কয়েকটি কোম্পানির গ্রোথ ১০০ থেকে ২০০ শতাংশ হয়েছে। সবমিলিয়ে ২৫০০ স্টার্টআপ কোম্পানিতে গত ৫ বছরে ১৫ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে।

৭-১০ মিলিয়ন ডলার ব্যয় করে আমরা এসিইসি’র জন্য বেশ কিছু ডিজিটাল সল্যুশন তৈরি করছি-বলেও জানান।

তিনি বলেন, সিড, গ্রোথ, গাইডেড, টার্গেড এই চার স্তরে স্টার্টআপকে বিন্যস্ত করে স্টার্টআপগুলোকে যথাযথ সহায়তা দেয়া গেলেই আগামীতে স্টার্টআপ কোম্পানিগুলো ডিজিটাল ইকোনোমির চালিকা শক্তিতে পরিণত হবে বলে।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব ও স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এনএম জিয়াউল আলম ও বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম।

Nagad

এছাড়াও সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএসইসির কমিশনার অধ্যাপক শেখ সামসুদ্দিন আহমেদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিএসইর চেয়ারম্যান ইউনুসুর রহমান।

অনুষ্ঠানে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়ার লক্ষ্যে ডিএসই ও স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালকরা চুক্তি সাক্ষর করেন।