মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের ৭১ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

মোংলা বন্দরের ৭১ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। আজ থেকে ৭০ বছর আগে দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্ববহ দেশের পণ্য আমদানি-রপ্তানির লক্ষ্যে নির্মিত হয় দক্ষিণাঞ্চলের তথা বাংলাদেশের দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক সমুদ্রবন্দর মোংলা।দেশ স্বাধীনের পূর্ব থেকে এ বন্দর দেশের অর্থনীতিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে চলছে আজ অবধি।বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবনের তীর ঘেঁসে বঙ্গোপসাগরের অদূরে নির্মিত হয় তাৎকালিক চালনা বন্দর পরে তা মোংলা নদীর নামানুসারে আজ যা মোংলা বন্দর নামে রুপান্তরিত হয়েছে।

১৯৫০ সালের পহেলা ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠালাভের পর ১১ ডিসেম্বর পশুর নদীর জয়মনির ঘোল নামক স্থানে দি সিটি অব লিয়নস, নামক প্রথম ব্রিটিশ বাণিজ্যিক জাহাজ নোঙ্গরের মাধ্যমে মোংলা বন্দরের আনুষ্ঠানিক কাজ শুরু করে। পরে ১৯৮৭ সালের পোর্ট অব চালনা অথরিটি অনুযায়ী পরিচালিত পরে সেটা মোংলা পোর্ট অথরিটি নামে নামকরণের পরিবর্তিত হয়।

১ ডিসেম্বর বুধবার মোংলা বন্দরের ৭১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের মধ্য ছিল র‌্যালি, আলোচনা , দোয়া অনুষ্ঠান কেক কেটে বন্দরের জন্মদিন পালন করা হয়।চলমান করোনাভাইরাস মহামারির কারণে কিছুটা সংক্ষিপ্ত ভাবে এ অনুষ্ঠান পালিত হয়।

মোংলা বন্দর ব্যবহারকারী আমদানি-রপ্তানিকারক, বন্দর কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তা কর্মচারী সহ সংশ্লিষ্ট সকল ব্যক্তিবর্গ,স্থানীয় প্রশাসনিক সকল দায়িত্বরত কর্মকর্তাগনও এ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে অনুষ্ঠানকে সাফল্যমণ্ডিত করেন।

সারাদিন/১ ডিসেম্বর/ আরএ

Nagad