প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরের অনলাইনে লাইসেন্স রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রমের উদ্বোধন

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ৫:৫৬ অপরাহ্ণ, ১৫/১১/২০১৯

সরকারের প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরের ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন, লাইসেন্স ও এনওসি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু, এমপি। এই সেবার মাধ্যমে গ্রাম পর্যায়ের সাধারণ মানুষও যারা প্রোল্ট্রি শিপ্লে জাড়িত সবাই কারখানার জন্য আবেদন, লাইসেন্স ও আমদানি করার অনুমতি পত্র পাবেন।

মঙ্গলবার (১৩ নভেম্বর) প্রাণীসম্পদ অধিদপ্তর ও বীজবিস্তার বিস্তার ফাউনডেশানের যৌথ উদ্যোগে অধিদপ্তরের কনফারেন্স রুমে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রতিমন্ত্রী। এ সময় ‘সফটওয়্যার উন্নয়নের মাধ্যমে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের অংশীজনের নিবন্ধন পদ্ধতি আধুনিকায়ন শীর্ষক’কর্মশালার আয়োজনও করা হয়।

কর্মশালায় আশরাফ আলী খান খসরু বলেন, এক সময় এই ডিজিটালাইজেশন নিয়ে মানুষ বিদ্রুপ করত। এখন আর কেউ বলে না। অথচ ঐ সময় যুব সমাজ কিন্তু ঠিকই বিষয়টি বুঝেছে, সাধারণ মানুষ এই ডিজিটালাইজেশন নিয়ে তেমন বেশি মাথাও ঘামায়নি, কিন্তু যুব সমাজ ঠিকই লুফে নিয়েছে।

এ সময় প্রোল্ট্রি শিল্পে জড়িত সবাই উদ্যেশ্য করে বলেন, মানুষের জন্য ক্ষতিকর এমন কিছু আপনারা করবেন না। লাভ করেন, কিন্তু রাতারাতি বড় হওয়ার প্রতিযোগিতা থেকে বেরিয়ে আসুন। কারণ আজকের প্রধানমন্ত্রী আর বিগত দিনের প্রধানমন্ত্রী কিন্তু এক নয়। এর বাস্তবতা কিন্তু আমরা এখন দেখতেই পাচ্ছি।

এসময় তিনি যেগুলো মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর, ধর্মী অনুভূতিতে আঘাত করে এমন কাজ থেকে পোল্ট্রি ব্যবসায়ীদের বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডাক্তার হিরেশ রঞ্জন ভৌমিকের সভাপতিত্বে এই প্রকল্পের বিভিন্ন কার্যক্রম ও ফলাফল বিষয়ে উপস্থাপন করেন, বীজবিস্তা ফাউনডেশানের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম জনি।

Nagad

এসময় প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরের ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশনের সেবা ও কারিগরি বিভিন্ন দিক নিয়ে উপস্থাপনা করেন বীজবিস্তা ফাউনডেশনের প্রকল্প পরামর্শক ডা: এ এইচ এম তাছলিমা আক্তার। এ সময় তিনি জানান, এই সফটওয়্যারটি তৈরি করেছেন ‘এরিনা ফোন বিডি লিমিটেড’।

কর্মশালায় প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা, বাংলাদেশ ভেটেরিনারি কাউন্সিল, বাংলাদেশ ফিড ইন্দুষ্ট্রি অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ডেইরি অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ব্রিটিশ কাউন্সিলের লিরা শিরিন।