সম্পদের মালিক হতে চাইলে যে অভ্যাসগুলো বদলাতে হবে

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৩৭ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৯, ২০২২

সংগৃহীত-

বর্তমান পৃথিবীতে ১০০ কোটি গরিবের যে সম্পদ রয়েছে তারচেয়ে চারগুণ বেশি সম্পদের মালিক প্রায় দুই হাজার ব্যক্তি। যাদের শীর্ষ ধনী বলা হচ্ছে। তারা যা সম্পদ তা ভারতের বাজেটের চেয়ে বেশি। এখন এমন বড় হওয়ার স্বপ্ন অনেকেই দেখেন; তবে ক’জনই বা হতে পারেন! আসলে ধনী হতে গেলে জীবনের অনেক অভ্যাস বদলে ফেলতে হবে।

সেই সাথে যেমন সৌভাগ্যেরও প্রয়োজন, ঠিক তেমনই পরিশ্রম, সততা ও জ্ঞানও থাকতে হয়। আসুন জেনে নেই যেসব কাজ ঠিকঠাক করতে পারলে বা অনুসরণ করলে বুঝতে হবে সম্পদ ধরা দেবে :

বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যাক্তি ইলন মাস্ক। যিনি মাত্র ১০ বছর বয়সেই তার জীবনের মোড় ঘুরে যায়। কম্পিউটারের প্রতি আগ্রহ জন্মাতেই ওই বয়সে ইলন প্রোগ্রামিং শেখেন।এর বেসিক প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করে তৈরি করেন ভিডিও গেম । যা তিনি ৫০০ ডলারে ‘পিসি অ্যান্ড অফিস টেকনোলজি ম্যাগাজিনের’ কাছে বিক্রি করে দেন। এর থেকেই শুরু ইন মাস্কের জীবনের কাহিনি। বর্তমানে ইলন মাস্ক একজন দক্ষিণ আফ্রিকান প্রকৌশলী ও প্রযুক্তি খাতের উদ্যোক্তা। তিনি মহাকাশ ভ্রমণ সংস্থা স্পেসএক্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা, বৈদ্যুতিক গাড়ির প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান টেসলা মোটরসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও পণ্য প্রকৌশলী।
এর পাশাপাশি তিনি একাধারে সোলারসিটির চেয়ারম্যান, দি বোরিং কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা, নিউরালিংকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা, ওপেনএআইয়ের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রতিষ্ঠাকালীন চেয়ারম্যান ও পেপ্যালের একজন সহ-প্রতিষ্ঠাতা।

আয়ের একাধিক রাস্তা খুঁজুন

অর্থ উপার্জনের জন্য শুধু একটি নির্দিষ্ট কাজকে প্রাধান্য দেবেন না। ধরুন, চাকরির পাশাপাশি ছোটখাট ব্যবসা শুরু করুন। যা আপনাকে আরও উপার্জনে সহায়তা করবে।

প্রতিদিন শেখা
সফল মানুষরা প্রতিদিনই নতুন কিছু শেখার চেষ্টা করেন। ৮৮ ভাগ ধনী লোক প্রতিদিন ৩০ মিনিট বা তারও বেশি সময় কঠোরভাবে জানতে এবং নিজেকে শিক্ষিত করতে ব্যয় করেন।

Nagad

উচ্চকাঙ্খী মানুষের সঙ্গে আড্ডা দিন

উচ্চাকাঙ্খী মানুষদের সঙ্গে মেলামেশা করুন। এতে নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাস আরও বাড়বে। ফলে লক্ষ্য পূরে আরও এগিয়ে যেতে পারবেন।

বড় বিষয় নিয়ে চিন্তা করুন

ছোটখাট বিষয় নিয়ে চিন্তা না করে বরং সব সময় বড় বিষয় নিয়ে ভাবুন। আপনার স্বপ্নপূরণের ক্ষেত্রে কী কী করণীয় সে বিষয়ে চিন্তার পরিধি আরও বাড়ান।

বিনিয়োগ করুন

বিভিন্ন কাতে অর্থ বিনিয়োগ করার মাধ্যমেও আপনি ভবিষতে অর্থ সঞ্চয় করতে পারবেন। যা এক সময় আপনার ধনী হওয়া স্বপ্ন পূরণ করবে। যদিও বিনিয়োগে ঝুঁকি থাকে লস হওয়ার, তবে সাফল্য পেতে হলে তো ঝুঁকি একটু নিতেই হবে!

দায়িত্বশীলতা
দায়িত্বজ্ঞান থেকে আপনি লজ্জা পান না। বস্তুত আপনি সুযোগ খোঁজেন, যা আপনাকে আরো দায়িত্ববান করে।

মিতব্যায়ী হন
অর্থ সঞ্চয়ের একমাত্র উপায় হলো মিলব্যায়ীতা। আপনি যতটা বুঝে শুনে কম খরচ করতে পারবেন, ততই অর্থ জমাতে পারবেন। তাই বাজেট করে চলুন। বিশ্বের যত ধনী ব্যক্তি আছেন, তারাও প্রয়োজন ছাড়া বেশি অর্থ ব্যায়ে বিশ্বাসী নন।

সকালে ঘুম থেকে উঠুন
ধনী হতে চাইলে জীবনধারাও সঠিক ও সুস্থ রাখতে হবে। এজন্য সকালে ঘুম থেকে উঠুন দ্রুত, এরপর করুন শরীরচর্চা। মনে রাখবেন, সুষ্ঠু জীবনযাত্রার মাধ্যমে আপনি যেমন শরীরকে সুস্থ রাখতে পারবেন, ঠিক তেমনই মনকেও লক্ষ্য পূরণে কাজ করার জন্য উৎসাহী করতে পারবেন।

ঝুঁকি গ্রহণ
আপনি সতর্ক এবং ঝুঁকি নিতে বেপরোয়া নন। সতর্ক ঝুঁকি গ্রহণকারী তাদের বাড়ির কাজ করেন, নতুন ধারণা এবং উদ্যোগ তাদের একটি ব্যবসার মধ্যে চালু করার আগে ঝুঁকি নিতে তারা দক্ষতা এবং জ্ঞানকে কাজে লাগান।

লক্ষ্য নির্দিষ্ট করুন
ধনী হওয়ার স্বপ্নপূরণের ক্ষেত্রে আপনার লক্ষ্য নির্দিষ্ট করুন। আর সেই লক্ষ্যেই এগিয়ে যান নিরলস পরিশ্রমের মাধ্যমে। আপনার লক্ষ্য যতটা বাস্তবাদী হবে, ততটাই আপনি সফলতার পথে এগিয়ে যাবেন।

ঋণ পরিশোধ করুন

ধনী ব্যক্তিরাও তাদের ঋণ পরিশোধের বিষয়ে খুব সতর্ক থাকেন। যত দ্রুত সম্ভব ঋণের বোঝা হালকা করুন। না হলে ভয়াবহ পরিণতি হতে পারে।

আরাম-আয়েশ ত্যাগ করুন
ধনী হতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই কমফোর্ট জোন থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। ধনী ব্যক্তিরা সর্বদা কাজ নিয়ে ভাবেন, এজন্য তারা আরাম-আয়েশের জীবন পছন্দ করেন না।

অন্যকে প্রাধান্য
লোকজন আপনাকে পছন্দ করে। তারা আপনার সঙ্গে কাজ করতে এবং ব্যবসা করতে পছন্দ করে। আপনি লোকদের প্রফুল্ল হতে, সুখী, উৎসাহী এবং আশাবাদী করে তোলেন।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া, জাগো, হিন্দুস্থান টাইমস